Home : খেলাধুলা : খুলনার ফিনিশার মাহমুদউল্লাহ

খুলনার ফিনিশার মাহমুদউল্লাহ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সমস্যা ছিল টপ অর্ডারে। জহুরুল ইসলাম ও জাকির হাসানের জুটিতে সেই সমস্যার সমাধান হয়েছে। সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহরা দায়িত্ব নেন মিডল অর্ডারের। সাকিব আছেন রান খরায়। কিন্তু সেই ক্ষতি পুষিয়ে যাচ্ছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। আগের ম্যাচে যেমন দ্রুত ২৪ রান যোগ করে খুলনার রান ফরচুন বরিশালের লাগাম ছাড়া করেন। আজ ১৯ বলে ৩১ করে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীকে হারিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ।

আগে ব্যাট করা রাজশাহীর ছুড়ে দেওয়া ১৪৬ রানের লক্ষ্য কঠিন হওয়ার কথা ছিল না। কিন্তু চোট থেকে ফেরা অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান ও ফর্মে থাকা মুকিদুল ইসলামের বোলিং দ্রুত রান তুলতে দেয়নি খুলনাকে। নাজমুলের অধিনায়কত্বের প্রশংসাও করতে হয়। তাঁর বোলিং পরিবর্তন, ফিল্ডিং সাজানো ছিল দুর্দান্ত। এসবই রাজশাহীকে ইনিংসের শেষ ওভার পর্যন্ত ম্যাচে রাখে।

ইনিংসের শুরুতে জাকির ও জহুরুলের ৫০ রানের জুটির পর মাঝের ওভারে কিছু উইকেটের পতন খুলনার চাপ বাড়ে। সাকিব-মাহমুদউল্লাহ ক্রিজে এসে কিছু সময় থাকলেই চাপটা সামলে নেওয়া যেত। কিন্তু সাইফউদ্দিনের বাইরের বল স্টাম্পে টেনে আউট হন সাকিব (৪)। মুকিদুল এসে আউট করেন রানের মধ্যে থাকা শামিম পাটওয়ারিকে। ম্যাচের পাল্লা যখন দুই দিকেই দুলছিল, তখন সাইফউদ্দিনের ১৯তম ওভারে ১৫ রান তুলে ম্যাচ হাতের মুঠোয় আনেন মাহমুদউল্লাহ। ইনিংসের ৪ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেটের জয় পায় খুলনা।

প্রথম ইনিংসে আবার মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর টপ অর্ডার মানেই যে নাজমুল হোসেন, সেটি আরেকবার সেটি প্রমাণ হয়। আনিসুল হক, রনি তালুকদারদের নিয়ে গড়া টপ অর্ডারে দ্রুত রান করা ও ইনিংস ধরে রাখার দুই কাজই নাজমুলকে করতে হতো। আজ সেটি করতে পেরেছেন এই তরুণ বাঁহাতি ওপেনার। তাঁর ৩৮ বলে ৫৫ রানের ইনিংসে রাজশাহীর শুরুর ব্যর্থতা কিছুটা ঢাকা পড়ে।

নাজমুল ছাড়া ওপরের সারির কেউই রান করতে পারেননি। আনিসুল, রনির ব্যর্থতার পর মেহেদী হাসান, ফজলে মাহমুদও আউট হন। ইনিংসের ১৪ ওভার তখন শেষ। রান মাত্র ৯৩। শিশিরের কারণে রাতের ম্যাচে একটু বেশিই রান দরকার হয়। সেটি আর হচ্ছে কই! শেষে এসে নুরুল হাসানের ব্যাটে কিছুটা মান রক্ষা। টানা পাঁচ ম্যাচে ব্যর্থ মোহাম্মদ আশরাফুলের বদলি হিসেবে খেলতে নামা জাকের আলীর সঙ্গে জুটি গড়ে নুরুল দলকে নিয়ে যান ১৪৫ রানে। ২১ বলে ৩৭ রানের ইনিংস খেলেন নুরুল।

About Moniruzzaman Monir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*