Home : প্রচ্ছদ : প্রবাসীদের জন্য আজ আসতে পারে সুসংবাদ

প্রবাসীদের জন্য আজ আসতে পারে সুসংবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারির কারণে দেশে এসে আটকা পড়া সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা হাজার হাজার প্রবাসী কর্মীদের জন্য আজ বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সুসংবাদ আসতে পারে।

বুধবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন সৌদি আরব, কাতার ও ইউএইসহ মধ্যপ্রাচ্যের ১০ দেশের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে প্রবাসী কর্মীদের ভিসা, আকামা জটিলতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে বৈঠকে বসবেন। বৈঠক শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের অবহিত করবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বৈঠক থেকে সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে প্রবাসী কর্মীদের সমস্যার ব্যাপারে সমাধান আসতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

গত বেশ কিছুদিন ধরে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে বিশেষ করে সৌদি প্রবাসী কর্মীদের ভিসা ও আকামার মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়ায় তাদের পুনরায় যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়। ৩০ সেপ্টেম্বর শত শত সৌদি প্রবাসী কর্মীর ভিসা, আকামার মেয়াদ শেষ হচ্ছে। স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধির দাবি ও সৌদি যাওয়ার জন্য বিমানের টিকিট পাওয়ার আশায় রাজপথে আন্দোলন করছেন হাজার হাজার সৌদি প্রবাসী।

সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রী সৌদি প্রবাসীসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের কর্মীদের ভিসার মেয়াদ ২৪ দিন বৃদ্ধির ব্যাপারে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধান রাজি হয়েছেন বলে জানান। কিন্তু ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধি করতে সৌদি দূতাবাসে গিয়ে প্রবাসীরা জানতে পারেন, দূতাবাস কর্তৃক মনোনীত কিছুসংখ্যক ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমে ভিসার মেয়াদ বাড়াতে হবে। এরপর প্রবাসীরা বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা এ ব্যাপারে সৌদি দূতাবাস থেকে কোনো নির্দেশনা পাননি বলে জানান। এতে বিপাকে পড়ে সৌদি প্রবাসীসহ বিভিন্ন দেশের কর্মীরা।

বিদ্যমান সমস্যা সমাধানে প্রবাসী কর্মীদের একটি প্রতিনিধি দল প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলে তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে সমস্যা সমাধানে উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ জানান।

প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও বলেন, প্রবাসীদের ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে তার করার কিছু নেই। একমাত্র কূটনৈতিকভাবে সমস্যার সমাধান হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী।

About Moniruzzaman Monir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*