Home : খেলাধুলা : বিদায়বেলায় মেসির জন্য সুয়ারেজের আবেগী বার্তা

বিদায়বেলায় মেসির জন্য সুয়ারেজের আবেগী বার্তা

স্পোর্টস ডেস্কঃ স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনায় পরিবারের মতোই হয়ে গেছিলেন আর্জেন্টাইন জাদুকর লিওনেল মেসি ও উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ। মাঠের বন্ধুত্ব ছাপিয়ে পারিবারিকভাবেও একে অপরের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছিলেন নিবিড়ভাবে। দুই পরিবারের মধ্যকার বন্ধন খুবই দৃঢ়।

কিন্তু হুট করেই সেই বন্ধনে টান লাগল। দীর্ঘ ছয় বছর বার্সেলোনায় থাকার পর ক্লাব ছাড়তে বাধ্য হলেন সুয়ারেজ। নতুন করে নাম লিখিয়েছেন স্পেনের আরেক ক্লাব অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে। স্বাভাবিকভাবেই প্রিয় বন্ধুর বিদায়ে আবেগাক্রান্ত হয়ে পড়েছেন লিওনেল মেসি। শুক্রবার এক বার্তায় তারই বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছেন বার্সা কিংবদন্তি।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্সটাগ্রামে এক বিশদ বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘আমি এরই মধ্যে কল্পনা করতে শুরু করে দিয়েছিলাম (সুয়ারেজকে ছাড়া কেমন হবে সময়) কিন্তু যখন আমি আজ ড্রেসিংরুমে গেলাম, এটা সত্যিই আমার কাছে অবিশ্বাস্য ঠেকেছে। মাঠ ও মাঠের বাইরে তোমার সঙ্গে সময় না কাটিয়ে থাকা আমার জন্য অনেক বেশি কঠিন হতে চলেছে।’

‘আমরা সবাই তোমাকে অনেক বেশি মিস করব। আমরা একসঙ্গে অনেক বছর খেলেছি, অনেক লাঞ্চ ও ডিনারের সঙ্গী ছিলাম। অনেক মুহূর্ত রয়েছে যা আমরা কোনোদিনও ভুলব না, একসঙ্গে কাটানো সময়গুলো কিছুতেই ভোলা সম্ভব নয়।’

‘তোমাকে অন্য কোনো জার্সিতে দেখা বেশ অদ্ভুতই হবে। এর চেয়েও কঠিন হবে মাঠে তোমার বিপক্ষে খেলা। তুমি একটা বিদায়ী সংবর্ধনা ডিজার্ভ করো, যা তোমার অর্জন ছিল। তুমি ক্লাবের ইতিহাসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। বার্সেলোনার দল ও তোমার ব্যক্তিগত ক্যারিয়ারে অনেক কিছু জিতেছ তুমি।’

এ বার্তায় ক্লাবের প্রতি চাপা ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়ে মেসি লিখেছেন, ‘এভাবে ছুড়ে ফেলে দেয়া তোমার প্রাপ্য ছিল না, যেমনটা তারা তোমার সঙ্গে করল। তবে সত্যি কথা বলতে, বর্তমান পরিস্থিতিতেই ক্লাবের কোনোকিছুতেই আমি আর অবাক হই না।’

মেসির এমন বার্তার জবাবে নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি সুয়ারেজও। নতুন ক্লাবে যোগদানের আগে মেসির মন্তব্যের জবাবে সুয়ারেজ লিখেছেন, ‘তোমার এই কথাগুলোর জন্য ধন্যবাদ বন্ধু। তবে এর চেয়েও বেশি ধন্যবাদ, তুমি আমার সঙ্গে যেমন ছিলেন তার জন্য। প্রথমদিন থেকেই আমি এবং আমার পরিবারের সঙ্গে অনেক আন্তরিক ছিলে তুমি। আমি সবসময় ব্যক্তি মেসির প্রতি কৃতজ্ঞ থাকব।’

‘আমি তোমাকে যা বলেছি, তা কখনও ভুলে যেও না। তুমি এক এবং অনন্য; আমি সর্বদাই এটা উপভোগ করেছি। অন্য ২, ৩ বা ৪ জন কী বললো, তাতে ক্লাবে তোমার অবদান ও অবস্থান একটুও বদলাবে না। তোমার জন্য অনেক ভালোবাসা। তোমাদের পাঁচজনকে (মেসি, তার স্ত্রী ও তিন সন্তান) অনেক মিস করব।’

About Moniruzzaman Monir

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*